1.3.3 / December 6, 2020
(/5) ()
Loading...

Description

সোনালী-বাদামী রংয়ের চুপসানো ভাঁজ হওয়া কিসমিস খুবই শক্তিদায়ক একটিফল। কেবল মিষ্টি জাতীয় খাবারের স্বাদ বাড়ানোর জন্যই নয়, অনেকে পোলাও,কোরমা এবং অন্যান্য অনেক খাবারেও কিসমিস ব্যবহার করেন। আঙ্গুর শুকিয়েতৈরি করা হয় মিষ্টি স্বাদের কিসমিস। এটি খেলে শরীরের রক্ত দ্রুতবৃদ্ধি পায়, পিত্ত ও বায়ুর সমস্যা দূর হয়, হৃদপিণ্ড সুস্থ থাকে। তাইপ্রতিদিন কিসমিস খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী। যেসব বিষয় নিয়েবিস্তারিত বলা আছেঃ হজমে সাহায্য করে রক্তশূন্যতা দূর করে জ্বরনিরাময় করে ক্যান্সার এসিডিটি কমায় চোখের যত্নে দাঁতের ও হাড়েরসুরক্ষা দেহে শক্তি সরবরাহকারী অনিদ্রা উচ্চরক্তচাপ ও কোলেস্ট্রোরেলকমায় ইনফেকশন হতে বাধা প্রদান করে কাজে মনোযোগ বাড়ায় কোষ্ঠকাঠিন্যদূর করে অ্যাসিডিটি কমায় শিশুর বিকাশ যেসব বিষয় সম্পর্কে জানতেপারবেনঃ কিসমিস খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা কিসমিসের পানির উপকারিতাকিসমিস খাওয়ার নিয়ম কিসমিস কখন খাওয়া উচিত কিসমিসের অপকারিতাকিসমিসের দাম কিসমিস গাছ কিসমিস কি

App Information কিসমিস খাওয়ার উপকারিতা

  • App Name
    কিসমিস খাওয়ার উপকারিতা
  • Package Name
    com.boishakhiapps.KismiserUpokarita
  • Updated
    December 6, 2020
  • File Size
    2.1M
  • Requires Android
    Android 5.1 and up
  • Version
    1.3.3
  • Developer
    BoishakhiApps
  • Installs
    1,000+
  • Price
    Free
  • Category
    Books & Reference
  • Developer
  • Google Play Link

BoishakhiApps Show More...

স্তন ক্যান্সারের কারন-প্রতিকার 1.3.5 APK
BoishakhiApps
স্তন ক্যান্সার একটি সাধারণ স্বাস্থ্য সমস্যা। পুরুষ এবং মহিলা উভয়েরইএ রোগ হতে পারে, তবে মহিলাদের মধ্যেই এর প্রবণতা বেশি দেখা যায়। স্তনক্যান্সার বর্তমানে পশ্চিমা বিশ্বসহ বেশিরভাগ অঞ্চলের নারীদের মধ্যেরীতিমতো আতঙ্কের নাম। তবে আশার কথা হলো সঠিক সময়ে এর নির্নয়ে আমরাসহজেই এর চিকিৎসা করতে পারি। আজ আমরা স্তন ক্যান্সার কি এবং এরচিকিৎসার কথা জানবো। স্তন ক্যান্সার কি স্তনের কিছু কোষ যখনঅস্বাভাবিকভাবে বেড়ে উঠে তখন স্তন ক্যান্সার হতে দেখা যায়। অধিকাংশমহিলাদের জন্য এই রোগ একটি আতঙ্কের কারণ। স্তন ক্যান্সার হয়েছে কি করেবুঝবেন স্তন ক্যান্সার হলে সাধারণত: নিচের লক্ষণ ও উপসর্গগুলো দেখাদেয় : *স্তনে একটি পিন্ডের মত অনুভব হয় *স্তনের বোঁটা থেকে রক্ত বেরহয় *স্তনের আকার ও আকৃতির পরিবর্তন হয় *স্তনের ত্বকে পরিবর্তন দেখাদেয়, যেমন-টোল পড়া *স্তনের বোঁটা ভিতরের দিকে ঢুকে যায় *স্তনের বোঁটারচামড়া উঠতে থাকে *স্তনের ত্বক লালচে যেমন-কমলার খোসার মতো এবংগর্ত-গর্ত হয়ে যায় কখন ডাক্তার দেখাবেন নিচের কারণগুলো দেখা দেয়ারসাথে সাথে ডাক্তারের কাছে যেতে হবে : *স্তনে নতুন এবং অস্বাভাবিকপিন্ড অনুভব করলে *পরবর্তী মাসিক পার হয়ে গেলেও পিন্ড না গেলে *স্তনেরপিন্ড আরও বড় এবং শক্ত হলে *স্তনের বোঁটা থেকে অনবরত রক্ত নির্গত হলে*স্তনের ত্বকে পরিবর্তন দেখা দিলে *স্তনের বোঁটা ভিতরের দিকে ঢুকেগেলে কোথায় চিকিৎসা করাবেন *জেলা সদর হাসপাতাল *মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল*বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় *বিশেষায়িতসরকারী/বেসরকারী হাসপাতাল পরীক্ষা-নিরীক্ষা *মেমোগ্রাম (Mammogram) বাস্তনের এক্স-রে *ব্রেস্ট আলট্রাসাউন্ড (Breast ultrasound) *ব্রেস্টম্যাগনেটিক রিজোন্যান্স ইমাজিং (Breast magnetic resonance imaging,(MRI)) *বায়োপসি (Biopsy) *রক্তের পরীক্ষা *বুকের এক্স-রে*কম্পিউটারাইজড টমোগ্রাফী স্ক্যান (Computerized tomography (CT)scan) *পজিট্রন ইমিশন টমোগ্রাফী স্ক্যান (Positron emissiontomography (PET) scan কি ধরণের চিকিৎসা আছে স্তন ক্যান্সোরের চিকিৎসানির্ভর করে স্তন ক্যান্সারের ধরণ, পর্যায় ক্যান্সারের কোষগুলো হরমোণসংবেদনশীল কিনা তার উপর। অধিকাংশ মহিলারাই স্তন অপারেশনের পাশাপাশিঅন্যান্য বাড়তি চিকিৎসাও গ্রহণ করে থাকেন। যেমন: কেমোথেরাপী,হরমোণথেরাপী অথবা রশ্মি থেরাপী । সচরাচর জিজ্ঞাসা স্তন ক্যান্সার নিয়ে আছেঅনেক জিজ্ঞাসা। নিচে কিছু উত্তর দেয়া হয়েছে, যা আপনার কাজে লাগবে আশাকরছি। প্রশ্ন.১ . স্তন ক্যান্সার কেন হয় ? উত্তর . স্তনের কিছু কোষঅস্বাভাবিকভাবে বেড়ে উঠলে স্তন ক্যান্সার হয়। প্রশ্ন .২ প্রশ্ন .২ .কাদের স্তন ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি বেশি রয়েছে ? উত্তর . যাদের স্তনক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা বেশি রয়েছে তারা হলেন : *পুরুষদের চেয়েমহিলাদের স্তন ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি বেশি *৬০ বছর বয়সের বেশিমহিলাদের *একটি স্তনে ক্যান্সার হলে অপরটিও আক্রান্ত হতে পারে *মা,বোন অথবা মেয়ের স্তন ক্যান্সার থাকলে *জীনগত (Genes) কারণে *রশ্মিরবিচ্ছুরণ থেকে (Radiation Exposure) *অস্বাভাবিক মোটা হলে *অল্প বয়সেমাসিক হলে *বেশি বয়সে মনোপজ হলে (Menopause) *বেশি বয়সে প্রথম বাচ্চানিলে *মহিলারা যারা হরমোন থেরাপী নেন *মদ পান করলে প্রশ্ন.৩প্রশ্ন.৩.স্তন ক্যান্সারে কি ধরণের অপারেশন করার প্রয়োজন হয়? উত্তর.স্তন ক্যান্সারের চিকিৎসার জন্য সাধারণত যে অপারেশনগুলোর করার প্রয়োজনহয়: *ল্যাম্পপেকটমি (Lumpectomy) *ম্যাসটেকটমি (Mastectomy)*সেন্টিনাল নোড বায়োপসি (Sentinel node biopsy) *অক্সিলারি লিম্ফ নোডডিসেকশন (Axillary lymph node dissection)
স্তন ঝুলে পড়ার কারণ ও প্রতিকার 1.3.5 APK
BoishakhiApps
নারীর স্তন বিভিন্ন ফ্যাটি টিস্যু এবং গ্রন্থি দিয়ে গঠিত যা দুধ তৈরিকরে। সেসব টিস্যু এবং গ্রন্থিগুলো চামড়া দিয়ে ঢাকা যেগুলোপ্রাকৃতিকভাবেই নমনীয়। এছাড়া ইলাস্টিন নামে একটি প্রোটিনের উপস্থিতিওএকটি কারণ। কিন্তু এই নমনীয়তা যদি চামড়ার উপড় চাপ ফেলে তাহলে স্তনঝুলে যায়।
স্কিন-ফ্রেশনার হিসেবে বাঁধাকপি 1.3.1 APK
BoishakhiApps
বাঁধাকপি খাওয়া ছাড়া আর কোনো কিছুর কথা কোনোভাবেই মাথায় আসে না।কারণখাবার হিসেবেও বাঁধাকপি অনেকে পছন্দ করেন না। আপনি খাবারজন্যবাঁধাকপি পছন্দ করুন আর নাই করুন। রূপচর্চায় বাঁধাকপির গুণেরকথাকিন্তু আপনাকে স্বীকার করতেই হবে। বাঁধাকপিতে সালফার বাঁধাকপিতেরয়েছেভিটামিন-বি, ভিটামিন-এ ও ভিটামিন-সি। এছাড়া বাঁধাকপিতেভিটামিন-কে-ওরয়েছে। ভিটামিন-কে রক্ত জমাট বাঁধতে বিশেষভাবে সাহায্যকরে। দেহের হাড়গঠন ও পুষ্টিতে ভিটামিন-কে বিশেষ প্রয়োজন। বাঁধাকপিতেসালফার রয়েছেপ্রচুর। সালফার আমাদের চুল ও দেহের স্বাভাবিক স্বাস্থ্য ওসৌন্দর্যরক্ষা করে। মুখের ত্বকে বাঁধাকপির সাহায্যে আমরা মুখের ত্বককেঅনায়াসেকোমল করে তুলতে পারি। প্রথমে বাঁধাকপির পরিষ্কার দু-তিনটি পাতানিয়েরস বের করুন। এবার এর সঙ্গে ১ চামচের চার ভাগের ১ ভাগ ইস্ট মেশানএবংএর সাথে ১ চামচ মধু মিশিয়ে ঘন পেস্টের মতো তৈরি করে নিয়ে সমস্তমুখেমেখে ১৫ মিনিট রেখে প্রথমে হালকা গরম পানি, পরে ঠাণ্ডা পানি দিয়েধুয়েফেলুন। স্কিন-ফ্রেশনার টনিক এছাড়া বাঁধাকপির সাহায্যেসুন্দরস্কিন-ফ্রেশনার টনিক বানাতে পারেন নিজ হাতেই। প্রথমে বাঁধাকপিরকয়েকটিটাটকা পাতা পরিষ্কার করে ধুয়ে নিয়ে কুচিয়ে ১ কাপ পানিতে কুচানোকপিফুটিয়ে ভালো করে সেদ্ধ করে সেই পানি ভালো ভাবে ছাঁকনিতে ছেঁকেনিন।তৈরি হয়ে গেল আপনার স্কিন-ফ্রেশনার। বাঁধাকপির সেদ্ধ পানিমুখভালোভাবে বেসন অথবা সাবান দিয়ে পরিষ্কার করে ধুয়ে একটু তুলোবাঁধাকপিরসেদ্ধ পানিতে ভিজিয়ে সারা মুখে, হাতে ও পায়ে লাগিয়ে নিন এবংশুকোতেদিন। মুখ মুছে ফেলবেন না। এতে এর গুণ নষ্ট হয়ে যাবে। পানি গরমঅবস্থায়দেবেন না। ঠাণ্ডা করে দেবেন। যেদিন বানাবেন সে দিন ব্যবহারকরবেন।বাসি করবেন না।
মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে করণীয় ও দুর্গন্ধ হবার কারণ 1.2.1 APK
BoishakhiApps
কিছু খেলে আবার অনেক সময় এমনিতেই অথবা রোগের জন্য মুখ থেকেদুর্গন্ধছড়ায়। এই দুর্গন্ধ মানুষকে প্নেক সময়ই বিব্রতকর অবস্থায় ফেলেদেয়।মুখের গন্ধের কারণে তার চারপাশের মানুষ কথা বলতে অস্বস্তি বোধকরে। যেকারণে মুখে দুর্গন্ধযুক্ত মানুষকে সবাই এড়িয়ে চলার চেষ্টা করেসবসময়ই।যাদের মুখে দুর্গন্ধ হয়। মুখ খুললেই ফুসফুসের বাতাসের সাথে সেগন্ধছড়িয়ে পরে আশপাশে। অনেক সময় মুখ বন্ধ থাকলেও অনেক লোকের মুখগহ্বরগন্ধ হয়। আবার অনেকের নিঃশ্বাসে থাকে তীব্র দুর্গন্ধ। এতে খুবইবাজেপরিস্থিতে পড়ে মানুষ। এক ধরনের রোগী আছে, যাদের মুখে এত বেশীগন্ধথাকে যে, তার আশপাশে সাধারণত কেউ টিকতে পারেনা। কিন্তু,নিজেরঅভিযোজিতার কারণে বেশীরভাগ ক্ষেত্রে রোগী নিজে সে গন্ধ একেবারেইটেরপান না। আবার এমন অনেক রোগী আছে, যারা নিজের মুখের গন্ধে নিজেইঅতিষ্ঠএবং বিব্রতকর অবস্থায় থাকেন। তারা অন্যদের সমস্যা হবে বলে কথাওইবলতেচান না অথচ অন্য কেউ তার সে গন্ধ একেবারেই টের পান না। এসমস্যাঅনেকটা মানসিক। মুখে গন্ধ থাকার কিছু কারণ থস্কে। সৃষ্টির কারণকি তাজেনে নিন – মেটাবলিজমের কারণেঃ মুখের যে কোন অংশে, বিশেষ করেদাঁত বামাড়িতে, চোয়ালে, জিহবার পিছনের দিকে ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাক বাঅন্য কোনজীবাণুর সংক্রমণ হলে সেখানে জীবাণুর বিপাক ক্রিয়া সম্পন্ন হয়।ফলে একপ্রকার রাসায়নিক পদার্থের সৃষ্টি হয়, যেগুলো মুখে দুর্গন্ধসৃষ্টিকরে। কেন ও কিভাবে এই জীবাণুর সৃষ্টি হয়? ১। দাঁতের ফাঁকে জমেথাকা বাআটকানো ময়লা পরিষ্কার না করলে, ২। গাঁজা, মারিজুয়ানা,মরফিন এরমতড্রাগ নিলে, ধূমপায়ী বা মদ সেবন কারীদের মুখে দুর্গন্ধ থাকে,৩।খাওয়ার পর মুখ ঠিকমত পরিষ্কার না করলে, ৪। রক্ত শূন্যতা, লিভারকিংবাকিডনির অসুখ, ক্যান্সার রোগীদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে গেলেমুখেসহজেই সংক্রমণ হয়, ৫। মুখে দুর্গন্ধ হবার একটি সাধারণ কারণহচ্ছেকাঁচা পেঁয়াজ বা রসুন খাওয়া অর্থাৎ যেকোন মসলা খেলে, ৬। এছাড়াকিছুরোগ – ক্যান্সার, খাদ্যনালীতে ব্লক অথবা অন্য কোন রোগ হলে সেরোগীদেরমুখে দুর্গন্ধ হয়। দুর্গন্ধ দূরীকরণে করণীয় কাজ – ১। মুখেঘা,ক্ষয়রোগ, মাড়ি রোগ হলে দ্রুত উপযুক্ত চিকিৎসা নেয়া অতিব দরকারি।এজন্যআপনার নিকটবর্তী ডাক্তারের পরামর্শ নিন। ২। নিয়মিত দাঁত, মাড়ি,জিহবাপরিষ্কার করুন। ৩। নিয়মিত মাউথ অয়াশ দিয়ে গড়গড়া করুন। ৪। সকালেএবংরাতে শোবার আগে দাঁত ব্রাশ করুন। সেই সাথে দাঁতের ফাঁকে আটকেথাকাময়লা বের করতে ফ্রস ব্যবহার করুন। ৫। মুখে লালা বাড়াতে মাঝেমাঝেচুইংগাম চিবাতে পারেন। ৬। বর্তমানে বাজারে প্রোবায়োটিকস পাওয়াযায়সেগুলি খেলেও উপকার পাবেন আশা করা যায়। ৭। বড় কোন রোগের কারণেমুখেদুর্গন্ধ হয়ে থাকলে রোগ নিরাময়ের জন্য চিকিৎসকের শরনাপন্ন হতেহবে।
শিশুর কানের ঘরোয়া চিকিৎসা 1.3.1 APK
BoishakhiApps
শীত ও বসন্তকালে অনেক শিশু কানের বিভিন্ন সমস্যায় আক্রান্তহয়।এক্ষেত্রে ১ থেকে ৩ বছরের শিশুর সংখ্যাই সর্বাধিক। অনেকেশিশুদেরকানের সমস্যায় ডাক্তারের পরামর্শ নেন। তবে হাতের কাছে ডাক্তারনাপেলে কি করবেন। শুধু ডাক্তারই নয় ঘরোয়া ও প্রাকৃতিক উপায়েওকরাযায় কানের চিকিৎসা। আসুন জেনে নেই সেসব পদ্ধতিগুলো।
কিসমিস খাওয়ার উপকারিতা 1.3.3 APK
BoishakhiApps
সোনালী-বাদামী রংয়ের চুপসানো ভাঁজ হওয়া কিসমিস খুবই শক্তিদায়ক একটিফল। কেবল মিষ্টি জাতীয় খাবারের স্বাদ বাড়ানোর জন্যই নয়, অনেকে পোলাও,কোরমা এবং অন্যান্য অনেক খাবারেও কিসমিস ব্যবহার করেন। আঙ্গুর শুকিয়েতৈরি করা হয় মিষ্টি স্বাদের কিসমিস। এটি খেলে শরীরের রক্ত দ্রুতবৃদ্ধি পায়, পিত্ত ও বায়ুর সমস্যা দূর হয়, হৃদপিণ্ড সুস্থ থাকে। তাইপ্রতিদিন কিসমিস খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী। যেসব বিষয় নিয়েবিস্তারিত বলা আছেঃ হজমে সাহায্য করে রক্তশূন্যতা দূর করে জ্বরনিরাময় করে ক্যান্সার এসিডিটি কমায় চোখের যত্নে দাঁতের ও হাড়েরসুরক্ষা দেহে শক্তি সরবরাহকারী অনিদ্রা উচ্চরক্তচাপ ও কোলেস্ট্রোরেলকমায় ইনফেকশন হতে বাধা প্রদান করে কাজে মনোযোগ বাড়ায় কোষ্ঠকাঠিন্যদূর করে অ্যাসিডিটি কমায় শিশুর বিকাশ যেসব বিষয় সম্পর্কে জানতেপারবেনঃ কিসমিস খাওয়ার উপকারিতা ও অপকারিতা কিসমিসের পানির উপকারিতাকিসমিস খাওয়ার নিয়ম কিসমিস কখন খাওয়া উচিত কিসমিসের অপকারিতাকিসমিসের দাম কিসমিস গাছ কিসমিস কি
সানবার্ন থেকে মুক্তির উপায় 1.3.1 APK
BoishakhiApps
প্রাকৃতিক সূর্যালোক শুধুমাত্র ভোরে এবং সূর্যাস্তের সময়েসরাসরিআপনার শরীরের ভিটামিন ডি ছড়িয়ে দেয় যা আমাদের শরীরের জন্যউপকারি।কিন্তু এই সময় ছাড়া যে সূর্যালোক আমাদের শরীরের উপর পড়ে তাক্ষতিকর ওআমাদের শরীরে রোদে পোড়া দাগের সৃষ্টি করে। একেই সানবার্নবলে।সানবার্ন বা রোদে পড়া দাগ আমাদের ত্বকে খুব খারাপভাবে বসে যায়, যাদূরকরতে আমাদের বেশ হিমশিম খেতে হয়। বাজারের নামীদামী ক্রিম ব্যবহারকরেওঅনেক সময় এই সানবার্ন থেকে রক্ষা পাওয়া যায়না। তাই জেনে নেইসানবার্নথেকে মুক্তি পেতে কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি।
বদভ্যাস ত্বকের ক্ষতি করে 1.3.1 APK
BoishakhiApps
আঁটোসাঁটো সময়সূচী বা দুরন্ত লম্বা ছুটির সময়ও এইতালিকাটিকেঅগ্রাধিকার দিতে হবে, যদি সুন্দর ত্বকের অধিকারী হতে চানতো! ভালোরসাথে সাথে কিছু খারাপ অভ্যাস অবশ্যই আছে, যা আমরা অজান্তেইঅনুসরণ করেচলি এবং তা আমাদের ত্বককে প্রভাবিত করে থাকে। এই ভুলগুলিপ্রায়প্রত্যেক মহিলাই করে থাকেন। সৌন্দর্য সচেতন নারীরা তাদের নিখুঁতত্বকপাওয়ার জন্য অবিলম্বে এই সকল বদভ্যাসগুলি সংশোধন করুন, হাতেনাতেফলপাওয়ার জন্য।আপনি আজ পর্যন্ত যদি এই কাজগুলি করে থাকেন তাহলেএখুনিভুল শুধরে নিন আর তফাৎটা দেখুন।
Loading...